সেতু নির্মাণের জন্য

সেতু নির্মাণের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর দরখাস্ত লেখার নিয়ম

সেতু নির্মাণের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর আমাদের দরখাস্ত লিখতে হয়। বিভিন্ন প্রয়োজনীয় সমস্যা সমাধানের জন্যও জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদনপত্র লিখতে হচ্ছে। কিন্তু সেতু নির্মাণের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর দরখাস্ত সম্পূর্ণ আলাদা বিষয়। এজন্য অবশ্যই আপনাকে সঠিকভাবে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানতে হবে

আপনাকে অবশ্যই জেলা বা এলাকার মধ্যে থাকতে হবে। জেলা বা এলাকার প্রধানকে বলা হয় জেলা প্রশাসক। জেলা প্রশাসক আমাদের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করেন। তাই আমরা যখন কোনো সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়, তখন আমাদের জেলা প্রশাসকের কাছে দরখাস্ত লিখতে হয় মাঝেমধ্যেই। এজন্য আমাদের জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদনপত্র লেখার নিয়ম-কানুন জানতে হবে।

জেলা প্রশাসক বরাবর দরখাস্ত লেখার সঠিক নিয়ম?

  • তারিখটি প্রথমে পৃষ্ঠার উপরের বাম দিকে লিখতে হবে। (উদাহরণস্বরূপ, তারিখ: ০৬-০২-২০..)
  • তারিখের সাথে, নীচে প্রাপকের নাম/পদবী লিখুন। (যেমন, আবেদনপত্র লেখা ব্যক্তির নাম/পদবী)
  • তারপর প্রাপক বা প্রতিষ্ঠানের সঠিক ঠিকানা টাইপ করুন।
  • পরবর্তী, সংক্ষেপে অ্যাপ্লিকেশনের মূল বিষয়বস্তু।
  • পরবর্তী, আপনাকে অবশ্যই একটি ব্যাখ্যা সহ অনুরোধের কারণগুলি স্পষ্টভাবে উল্লেখ করতে হবে। এখানে আপনি মূল বিষয়বস্তু উল্লেখ করবেন।
  • সম্পূর্ণ বিবরণের শেষে, নীচে “বিনীত নিবেদক” শব্দগুলি লিখুন এবং স্পষ্টভাবে আপনার নাম এবং ঠিকানা লিখুন।
  • আবেদনটি অবশ্যই একটি খামে ঢুকিয়ে প্রাপকের কাছে পাঠাতে হবে।

বাংলায় জেলা প্রশাসক বরাবর দরখাস্ত দরখাস্ত লেখার নিয়ম

  • আবেদনপত্র/দরখাস্ত সর্বদা এক পৃষ্ঠায় লিখতে হবে।
  • আবেদনপত্র/দরখাস্ত লেখার পাতায় কোন মার্জিন দেয়া যাবে না। (এটি আবেদনপত্র/দরখাস্তের সৌন্দর্য নষ্ট করে)
  • আবেদনপত্র/দরখাস্তের উপর কোন কাঁটাছেড়া লেখা থাকা উচিত নয়।
  • বানানের প্রতি বিশেষ মনোযোগ দিন। বানান অবশ্যই ভুল করবেন না।
  • অনুগ্রহ করে দরখাস্ত/আবেদনে অপ্রয়োজনীয় শব্দ লিখবেন না। মূল সমস্যাটি সংক্ষিপ্ত করার চেষ্টা করুন।
  • স্পষ্ট ও সহজ ভাষায় দরখাস্ত/আবেদনপত্র লিখুন, যাতে যে কেউ সহজেই পড়তে পারে। কারণ এই ধরনের পত্রে অগোছালো লেখাকে প্রাধান্য কম দেয়া হয়।

দরখাস্ত ও আবেদনপত্র এর নমুনা

নীচের জেলা প্রশাসকের কাছে নমুনা দরখাস্ত পত্র অনুসরণ করে, আপনি একটি দরখাস্ত লিখতে পারেন। অনুরোধ পত্র লেখার সময় অবশ্যই আপনার নাম, ঠিকানা এবং সমস্যা উল্লেখ করতে হবে। আমি নীচে একজন ব্যক্তির নাম, ঠিকানা এবং সমস্যাটি আপনাকে ব্যাখ্যা করার জন্য ব্যবহার করছি৷

সেতু নির্মাণের জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম

তারিখ : ২৮-০৬-২০–

বরাবর,

জেলা প্রশাসক

(আপনার থানা ও জেলার নাম লিখুন)

বিষয় : খালের উপর সেতু নির্মাণের জন্য আবেদন।

জনাব,

বিনীত নিবেদন এই যে, আমরা আপনার জেলার (এলাকার নাম লিখুন) থানার বাসিন্দা। এটি একটি ঘনবসতিপূর্ণ উপজেলা। বর্তমানে এখানকার প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে একটি খাল। খালটির দুই পাড়েই শত শত মানুষের বসবাস। নিয়মিত খালের দুই পাড়ে যোগাযোগের জন্য একপাড়ের মানুষকে অন্য পাড়ে যেতে হয়। ফলে খালের উপর তৈরি হয়েছে বেশ কয়েকটা ঝুঁকিপূর্ণ বাঁশের দুর্বল সাঁকো। আর এই সাঁকো পার হতে গিয়ে বেশিরভাগ সময়ই অসাবধানতায় শিশু এবং বৃদ্ধরা পড়ছে মারাত্মক জীবন ঝুঁকিতে।

অতএব, মহোদয়ের কাছে বিনীত নিবেদন এই যে, আমাদের পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে শিশু বৃদ্ধদের জীবন ঝুঁকি এড়াতে উক্ত খালের উপর দিয়ে একটা মজবুত সেতু তৈরি করে জনকল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করার জন্য মহোদয়ের মর্জি হোক।

নিবেদক,

(আপনার উপজেলার নাম)

সাক্ষর ১

সাক্ষর ২

সাক্ষর ৩

সাক্ষর ৪

সাক্ষর ৫

অবশেষে কিছু কথা,

জেলা প্রশাসক বরাবর একটি দরখাস্ত লিখতে হলে আপনাকে প্রথমে জেলা প্রশাসকের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানতে হবে। জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদনপত্র লেখার আগে কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে। জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদনপত্র লেখার সময় আপনি বানান ভুল করতে পারবেন না। এছাড়াও আপনি যে বিষয়টি জেলা প্রশাসকের কাছে উপস্থাপন করতে চাচ্ছেন, সেই বিষয়টি সরাসরি আবেদনপত্রে লিখতে হবে।

আজ আমরা জেলা প্রশাসকের কাছে একটি দরখাস্ত লেখার নিয়ম নিয়ে আলোচনা করলাম। উপরে আমরা জেলা প্রশাসককে একটি সমস্যার বিষয় নিয়ে আবেদন করেছি। আপনার সমস্যার উপর নির্ভর করে, আপনি উপরের উদাহরণটি দেখে জেলা প্রশাসককে একটি অনুরোধ পত্র লিখতে পারেন। এছাড়াও আপনি যদি আমাদের আবেদন ফর্মটি হুবহু কপি করে নেন, তাহলে আপনার সমস্যা হতে পারে। এই কারণে, এখানে নমুনা পত্রের মাধ্যমে জেলা প্রশাসককে আপনার নিজের অনুরোধ পত্র লিখুন।

আরও পড়ুন – আর্সেনিকমুক্ত পানি ব্যবস্থার জন্য মেয়রের কাছে দরখাস্ত লিখুন

Similar Posts