পবিত্র কোরআন থেকে মেয়েদের নাম জেনে নিন আজকেই

কোরআন থেকে মেয়েদের নাম

কোরআন থেকে মেয়েদের নাম জানতে অনেকেই গুগল এ সার্চ করেন। আজকের পোস্টটি তাদের জন্য।  কুরআন আল্লাহর কিতাব। এটি মানবতার হেদায়েতের জন্য অবতীর্ণ হয়েছে। কোরআনে আল্লাহর প্রিয় বন্দী ও নারীদের বেশ কিছু নাম উল্লেখ করা হয়েছে। তারা দুনিয়াতে আল্লাহকে খুশি করতে পেরেছিল বলেই আল্লাহ তাদের নাম কোরআনে উল্লেখ করেছেন। অতএব, আপনি আপনার মেয়ের জন্য কুরআন থেকে একটি মেয়ের নাম পছন্দ করতে পারেন। মেয়েদের নাম কুরআন অনুযায়ী রাখা পিতামাতার কর্তব্য, কারণ কিয়ামতের দিন আল্লাহ প্রত্যেক ব্যক্তিকে তার নামে ডাকবেন।

আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি কোরআন থেকে মেয়েদের নাম এর তালিকা, অর্থ সহ কুরআন থেকে প্রাপ্ত মেয়ের নাম এবং মুসলিম মেয়েদের নাম। আজকের পোস্টে আপনি কোরআন থেকে মেয়েদের নাম জানতে পারবেন

কোরআন থেকে মেয়েদের নাম

  • আলিয়া = পবিত্র, অসাধারণ
  • আরজু = ইচ্ছা
  • আসিয়া = যে সাহায্য করে
  • আসমা = আকাশ, অসাধারণ
  • আয়াত = কোরানের বাণী
  • আফরীন = উৎসাহ
  • আলমাস = হীরে
  • আমিরা = রাজনন্দিনী
  • আমিনা = বিশ্বস্ত
  • আমায়রা = নেতৃ, রাজকুমারী
  • আইদাহ = অসুস্থকে দেখতে গিয়েছে যে, ফিরিয়ে আনা
  • আয়েশা = জীবন্ত
  • বাহার = শরৎ
  • বেনজির = যার কোনও নজির নেই
  • বুশরা = সুসংবাদ
  • দিলশাদ = আনন্দিত
  • দিনায়াহ = ধর্ম
  • ইরাম = স্বর্গ
  • ইশাল = উৎসাহিত
  • ফয়জা = জয়
  • ফারাহ = আনন্দ
  • ফাতিমা = হজরতের পুত্রী
  • ফিলজা = অত্যন্ত প্রিয়
  • ফিরোজা = একটি রঙ
  • ফিজা = মৃদু বাতাস
  • গৌহর = মুক্তো
  • গাজালা = সূর্যোদয়ের ঠিক পরের সময়
  • হায়া = নম্রতা
  • হসিনা = সুন্দর
  • হীনা = মেহেন্দি
  • হুমা = স্বর্গের পাখি
  • হুমায়রাহ = যাঁর গাল লাল
  • ইবাদত = উপাসনা, ভকত্তি
  • ইনারা = আলোক রশ্মি, স্বর্গ থেকে পাঠানো
  • ইকরা = আবৃত্তি করা
  • জাহান = পৃথিবী
  • জাহিদা = স্বর্গ
  • জামিলা = সুন্দর
  • কাহকাশান = ব্রহ্মাণ্ড
  • কলিমা = বক্তা, বলা কথা
  • খাদিজা = হজরত মোহম্মদের স্ত্রীর নাম
  • লাইলাহ = রাত্রি
  • লতিফা = ভদ্র, সহৃদয়
  • লুবনা = যে গাছ সুগন্ধী রেসিন দেয়
  • মাহিরা = দক্ষ
  • মন্নত = ইচ্ছা
  • মেহের = দয়া
  • মুসার্রত = আনন্দ
  • নাজ = গর্ব
  • নাদিরা = বিরল
  • নফিসা = মূল্যবান
  • নাগমা = গান
  • নায়রা = উজ্জ্বল, চকচকে
  • নার্গিস = ফুল
  • নাসরীন = বন্য গোলাপ
  • নৌশীন = সমর্থনযোগ্য
  • নূর = ঐশ্বরিক আলো
  • ওরজালা = আগুনের ঔজ্জ্বল্য
  • পাকিজা = শুদ্ধ
  • পরবীনা = উজ্জ্বল তারা
  • কাহিরা = জয়ী
  • কাইলাহ = যে কথা বলে
  • কায়সার = সুন্দর আবৃত্তি
  • রফিকা = দয়ালু, ভদ্র সঙ্গী
  • রাহিলা = যাত্রী
  • রিহানা = মিষ্টি তুলসী
  • সাবিনা = সুন্দর
  • সাবিরা = ধৈর্যশীল
  • সায়রা = যাত্রী
  • সলমা = নিরাপদ
  • সামায়রা = ভালো বন্ধু
  • সানা = জ্ঞানী
  • সাহানা = আভিজাত্য
  • সানিয়া = উজ্জ্বল
  • শাহীন = ম্যাগনিফিশিয়েন্ট
  • শাজিয়া = মূল্যবান
  • শিফা = সেরে ওঠা
  • সোহা = তারা
  • সুরায়া = তারার সমষ্ঠি
  • সুমাইয়া = শুদ্ধ
  • তাহিরা = শুদ্ধ, পাপ মুক্ত
  • তমান্না = আকাঙ্খা
  • তেহজীব = ভালো ব্যবহার যাঁর
  • উমাইরা = অনুপ্রেরণামূলক
  • উরশিয়া = আকাশের সঙ্গে সম্পর্ক যাঁর
  • উজমা = শ্রেষ্ঠতম
  • উরওয়াহ = সদাবাহার গাছ
  • বরদাহ = গোলাপ
  • ওয়াহিদা = অভিনব
  • ইয়ামিনা = আশীর্বাদ প্রাপ্ত
  • ইয়েলদা = জ্যাসমিন ফুল
  • জাহরা = চকচকে
  • জৈনব = সুগন্ধী গাছ
  • জারা = রাজকুমারী
  • জরিনা = সোনালী
  • জিবা = সুন্দর
  • জোয়া = ভালোবাসে ও যত্ন করে যে
  • শামীমা = সুগন্ধী / সুভাষ
  • ইসরাত = সাহায্যকারি
  • নাজমা = দামি / অমূল্য
  • জাকিয়া = পবিত্র / পরিচ্ছন্নকারী
  • হামিদা = প্রশংসিত / সম্মানিত
  • তাহিয়া = সম্মানকারি
  • জুই = ফুলের নাম। ( অর্থ অজানা, দুঃখিত)
  • সায়মা = উপবাসকারী / রোজাদার
  • শারমিন = লাজুককারী
  • নাদিয়া = ডাকা/ আহ্ববানকারী
  • আকলিমা = দেশ / রাজ্য
  • আতিকা = সুন্দরী
  • আকিলা = বুদ্ধমতি নারী।
  • ইসরাত = সাহায্যকারিনী
  • লামিয়া = ভাজ্ঞবানবর্তী / উজ্জ্বলবর্তী।
  • লাইলী = রাত্রি।
  • ইসমত = সতী নারী / সাধুতা।
  • ইস্তিনামাহ = আরামকারিনী।
  • লুবাবা = খাটি / প্রসিদ্ধ।
  • সাবিহা = রূপসিবর্তী।
  • মাহমুদা = প্রশংসিতা।
  • মাহিয়া = নিবারণকারিনী।
  • রামিসা = নিরাপদকারিনী।
  • রায়হানা = একটি সুগন্দি ফুল।
  • রাশিদা = বিদূষী।
  • নাফিসা = মুল্লবানবর্তী।
  • মাসুমা = নিষ্পাপ বর্তী।
  • মালিহা = রূপসিবর্তী।
  • হাসিনা = সুন্দরীনি।
  • ফারিহা = সুখিনী।
  • বিলকিস = রানী।
  • হাবিবা = প্রিয়া।
  • তাবিয়া = অনুগতকারিনী।
  • আনিকা = রূপসিবর্তী।
  • তাসনিয়া = প্রসংসিতা।
  • তাবাস্সুম = মুসকি হাসি (মুসকি হাসি রাসূল সাঃ এর সুন্নাত)
  • ফাতেমা = নিষ্পাপ / নির্দোষ।
  • ফরিদা = অনুপমকারিনী।
  • তোহফা = উপহারকারিনী।
  • তাহসিনা = উত্তমকারিনী।
  • ফারাহ = আনন্দকারীনী।
  • ফাতেহা = আরম্ব / শুরু করা।
  • তাখমিনা = অনুমানকারিনী।
  • ফারহানা = আনন্দীতা
  • ফেরদাউস = জান্নাতের একটি নাম।
  • ফারজানা = জ্ঞানী
  • ফাওজিয়া = বিজয়ীনি
  • মুনতাহা = পরীক্ষিতা
  • নাসরিন = সাহায্যকারী
  • ফারিয়া = আনন্দকারীনি
  • সুলতানা = মহারাণী
  • শিরিন = সুন্দরীনী
  • হালিমা = দয়ালুবর্তী
  • শাহিনুর = আলো / চাঁদের আলো।
  • নাহিদা = উন্নতকারিনী
  • সাইমা = উপবাসকারিনী
  • ইয়াসমিন = একটি ফুলের নাম।
  • হাবিবা = ভালোবাসা / প্রিয়া
  • আয়শা = সমৃদ্দশালী
  • জেসমিন = একটি ফুলের নাম।
  • সানজিদা = বিবেচককারিনী
  • নুসরাত = সাহায্যকারিনী
  • নাজিফা = পবিত্রকারিনী
  • নাফিসা = মুল্লবানকারিনী
  • মুর্শিদা = পথর্শীকা
  • সাজেদা = ধার্মিক
  • সাহানা = রাজকুমারী
  • শাফিয়া = মধ্যস্থতাকারিণী
  • হুমায়রা = রূপসিবর্তী
  • নারগিস = ফুলের নাম
  • ফাহমিদা = বুদ্ধিমতি
  • জাবীরা = রাজি হওয়া
  • সাদিয়া = সোভাগ্যবর্তী
  • তুবা = সুসংবাদকারিনী
  • রহিমা = দয়ালুবতী
  • আসমা = তুলনাহীন / অতুলনীয়
  • শাবানা = রাতিমধ্যে
  • জুলফা = উদ্যান / বাগান।

আমরা কোরআন থেকে মেয়েদের নাম এর একটি তালিকা প্রস্তুত করেছি। আমি আশা করি, আপনি আপনার মেয়ের জন্য কোরআন থেকে মেয়েদের নাম তালিকা থেকে সংগ্রহ করতে পেরেছেন। ধন্যবাদ।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *